বরগুনায় কুমিরের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ গেল দর্শনার্থীর

নিউজ ডেস্ক- বরগুনার তালতলী উপজেলার ট্যাংড়াগিরি ইকোপার্কে কুমির প্রজনন কেন্দ্রে কুমিরের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে এক দর্শনার্থী নিহত হয়েছেন।  শনিবার দুপুরে বিপজ্জনক স্থানে দাঁড়িয়ে ছবি তোলার সময় একটি কুমির ওই দর্শনার্থীকে টেনে পুকুরে নিয়ে হত্যা করে।

নিহত দর্শনার্থীর নাম আসাদুজ্জামান রনি (২৯)।  তিনি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হিসাবরক্ষক মো. গোলাম মোস্তফার একমাত্র ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, আজ দুপুর ২টার দিকে রনি তালতলীর ট্যাংড়াগিরি ইকোপার্কের কুমির প্রজননকেন্দ্রে কুমির দেখতে যান।  তিনি বিপৎসীমার প্রাচীর টপকে একটি কুমিরের কাছাকাছি গিয়ে সেলফি তুলছিলেন।   হঠাৎ একটি কুমির তাঁকে আক্রমণ করে।  কুমিরটি তাঁকে টেনে পুকুরে নিয়ে যায়।

তালতলীর ফকিরহাট বনভূমির বিট কর্মকর্তা সজীব কুমার মজুমদার বলেন, খবর পেয়ে স্থানীয় বনকর্মীরা সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ছুটে যান।  ততক্ষণে কুমিরটি দর্শনার্থী রনির মৃতদেহ ছেড়ে দিলে তা পুকুরে তলিয়ে যায়।  পরে স্থানীয় অধিবাসীসহ  তালতলী থানা পুলিশের সহযোগিতায় দুই ঘণ্টার চেষ্টার পর লাশ উদ্ধার করা হয়।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ হালদার বলেন, দর্শনার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।  ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

 

You may also like...